ব্লগ

September 17, 2020

মেঘ দূর করা আলো

প্রকৃতির এই বৈরি খেয়ালের মাত্রা বিগত বছরগুলোর তুলনায় এবার বেড়েছে। দীর্ঘমেয়াদি বন্যায় অসহায় দেশবাসী। অনেকেই আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছিল, কেউ কেউ হয়েছেন নদী ভাঙনের শিকার। কিছুদিন আগেও যে স্কুলকে ঘিরে স্বপ্ন দেখত শিক্ষার্থীরা, তাদের সামনে এখন শুধু নদীর অথৈই জল। স্কুলটিকে ঘিরে বাচ্চাগুলোর কত স্বপ্ন, কত আনন্দ ছিল, কিন্তু সবই মিলিয়ে গেল নির্মম ও কঠিন বাস্তবতায়।
September 16, 2020

১৬ লক্ষ চশমা!

রিডিং গ্লাস বা চশমাকে দারিদ্র্য বিমোচনের কাজে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে- এই ভাবনার বিষয়ে জানার সঙ্গে সঙ্গেই আমার মনে এলো বাংলাদেশে কর্মরত ব্র্যাকের স্বাস্থ্যসেবিকাদের কথা। মনে পড়ল আয়েশা আবেদ ফাউন্ডেশনের হাজার হাজার কারিগরদের কথা। জানতাম, চোখে কম দেখার কারণে অনেকেই সূক্ষ্ম কাজ করতে গিয়ে বেকায়দায় পড়েন। এর ফলে অনেকের রোজগার কমে যেত, এমনকি কেউ কেউ কাজও হারিয়েছেন। চোখের ডাক্তার দেখানো হয়তো অনেকের সাধ্যের অতীত, তাই তাদের কাছে একটি সমাধান পৌঁছে দেওয়া অবশ্যই প্রয়োজন।
August 30, 2020

লবণ-গুড় স্যালাইন : উন্নয়নে ওটেপ একটি গেম চেঞ্জার

ডায়রিয়ার প্রকোপ যেখানে বেশি সেই গ্রামাঞ্চলে এটি কোনোভাবেই পৌঁছানো সরকার বা কারও পক্ষেই সম্ভব ছিল না। তার ওপর রয়েছে সংশ্লিষ্ট ব্যয়। তখন বলা হতো যে, প্রতিটি ডায়রিয়ার ক্ষেত্রে যদি দু প্যাকেট স্যালাইন ব্যবহৃত হয়, তাহলে তা প্রজাতন্ত্রের সম্পূর্ণ স্বাস্থ্য বাজেট ছাড়িয়ে যাবে। একটা বিকল্প হিসেবে মনে হলো যদি মানুষকে ঘরে বসে এই স্যালাইন বানানোর কৌশল শেখানো যায় তাহলে কেমন হয়?
August 25, 2020

অপরাজিতাদের গল্প!!

পরিবারের সবাইকে নিয়ে ভালো থাকতে বারবার কেবল নারীকেই ত্যাগ স্বীকার করতে হয়, মানিয়ে নিতে হয়। কেন এই মেনে নেয়া? কী সেই টানাপোড়েন? অন্যের কাছে ভালো হওয়ার নেশা নাকি কোনো দায় মেটানোর চেষ্টা? এমন যদি হতো তার ওপর চেপে বসা সংসারের দায়িত্বগুলো পরিবারের অন্যরাও ভাগ করে নিচ্ছে, তাহলে কেমন হতো সেই জীবন?
August 20, 2020

‘রিয়েল লাইফ হিরো’ স্বীকৃতি পেলেন ব্র্যাককর্মী

রোহিঙ্গা শিবিরের জন্য সাইক্লোন সেন্টার নির্মাণের দায়িত্ব নিয়ে তিনি কক্সবাজারে যান। সেখানে কাজ করতে গিয়ে তিনি অনুভব করেন সহিংসতার শিকার এবং সব হারিয়ে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আমাদের দেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা নারীদের জন্য নিরাপদ স্থান থাকা কতোটা জরুরি।
July 30, 2020

মুক্তির টানে
অভিশাপ বরণ

আহমেদাবাদের সরু গলির পতিতালয়ে আশ্রয় হয় তার। সেটি এক দূর্ভেদ্য দূর্গ। মূল ফটকে প্রহরী, ভেতরেও অসংখ্য প্রহরী। প্রত্যেককে বন্দী করে রাখা হয়েছে আলাদা কক্ষে। সেখানেই খাওয়া-দাওয়া, ঘুম, টয়লেট সবকিছু। কক্ষের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই, অন্য কারও সঙ্গে কথা বলারও সুযোগ নেই। বোনকে দেখারও উপায় নেই। তবে জানলেন ছোটো বোনও এখানেই পাশের কোনো কক্ষে আছে। দুই বোনকেই জোরপূর্বক যৌনকর্মী হিসেবে কাজ করতে বাধ্য করা হলো। অস্বীকৃতি জানালে শুরু হয় শারীরিক নির্যাতন।
July 30, 2020

একজন সংগ্রামী নারীর জীবনগাথা

দেশে পাঁচ বছর চাকরি করার পর রাফিজা টাকা জমিয়ে ওমানের একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতে যান। বিদেশে যাবার আগে তিনি ছেলেকে রেখে যান মায়ের কাছে। আট বছর পর দেশে ফিরে আসেন। ছেলে বড়ো হয়েছে, তাকে এবার ব্যাবসা করার ব্যবস্থা করে দেন। নিজে সেবামূলক কাজের সাথে যুক্ত হবার সিদ্ধান্ত নেন।
July 28, 2020

মধ্যবিত্তের টানাপোড়েন

জীবন এবং জীবিকা মধ্যবিত্ত কিংবা নিম্ন-মধ্যবিত্তর সামনে সবচেয়ে কঠিন প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। জীবিকার সন্ধানে থাকা মানুষগুলো আজ অপ্রিয় অথচ কঠিন সত্যের মুখোমুখি। প্রতিনিয়ত জীবনযুদ্ধে থাকা মানুষগুলোর জীবনের জীবিকা রক্ষাও এখন বড়ো ব্রত। ঢাকা শহরের অলিগলিতে ঢুঁ দিলেই দেখা যাবে পরিপাটি বাড়িগুলোতে ঝুলছে টু-লেট লেখা সাইনবোর্ড। পাড়ার মোড়ের দেয়ালগুলো বছরজুড়ে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের পোস্টারে ছেয়ে থাকে অথচ সেখানে জায়গা করে নিয়েছে টু-লেট, সাবলেট অগণিত বিজ্ঞাপন।
July 27, 2020

বদলে যাওয়া কর্মক্ষেত্র ও কর্মীর সুরক্ষা: ২য় পর্ব

ব্র্যাকের প্রধান কার্যালয়ের প্রবেশমুখেই রাখা হয়েছে জীবাণুনাশক গালিচা। যার ওপর দিয়ে হেঁটে গেলেই জুতা জীবাণুমুক্ত হয়ে যাবে। অফিসের যারা প্রবেশ করবেন তাদের প্রত্যেকের শরীরের তাপমাত্রা মাপার জন্য থার্মাল স্ক্যানার নিয়ে সর্বদা উপস্থিত আছেন সুরক্ষাকর্মীরা।
July 26, 2020

বদলে যাওয়া কর্মক্ষেত্র ও কর্মীর সুরক্ষা: ১ম পর্ব

“প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে নিয়মিতভাবে সাজাতে হবে কর্মপরিকল্পনা। একটি পরিকল্পনা বাস্তবায়নের পর—সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতের জন্য ঠিক করতে হবে নতুন কর্মপদ্ধতি। একটি প্রতিষ্ঠানের সবচেয়ে মূল্যবান উপাদান হচ্ছে মানবসম্পদ। তাই যেকোনো পরিস্থিতিতেই কর্মীদের নিরাপত্তা এবং তাঁদের মনোভাবকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হলে পরিচালন ব্যয় নিয়ন্ত্রণে রেখেও প্রাতিষ্ঠানিক লক্ষ্য নিশ্চিত করা সম্ভব।”
July 21, 2020

যুদ্ধে জয়ী হলাম

 আমার এই বিপদের কথা পরিবার ও বাবার কাছে জানাতে পারছিলাম না। আমি বাবার একমাত্র সন্তান। আমার বাবার বয়স ৭৫ বছরের বেশি, একথা জানলে তিনি নিজেই অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। তারপরও আমি রিজিওনাল ম্যানেজার ভাইকে বলি, আমি সকালে গ্রামে চলে যেতে চাই। ভাই বুঝিয়ে বলেন, এখন পরিবারের সবার নিরাপত্তার কথা ভেবে বাড়ি যাওয়া উচিত হবে না। এরই মধ্যে জোনাল ম্যানেজার আপা ফোন করে বললেন, ‘আপনি ফুলবাড়ীয়া ব্র্যাক অফিসে আইসোলেশনে থাকবেন। আমি আপনাকে নিয়ে যাবার ব্যবস্থা করছি।’
July 19, 2020

নিশ্চিত হোক অধিকার

ঢাকায় থাকেন, মেয়েকে নিয়ে ভালোই আছেন, টাকা-পয়সা রোজগার করছেন- এই খবর পেয়ে স্বামী আবার ফিরে আসে হামিদার জীবনে। তার সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করে এবং এক সময় তাদের সম্পর্ক ভালো হলে,স্বামীও ঢাকায় চাকরি নেন। গত মার্চ মাসে মহামারির কারণে দেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা হলে হামিদা আর তার স্বামী বাড়িতে ফিরে যান। কিন্তু গ্রামের বাড়িতে চলে আসার পর আবারও তার কাছে স্বামী এবং শ্বশুর-শাশুড়ির টাকা চাওয়া শুরু হয় ।