তানজানিয়ায় ব্র্যাক সড়ক

July 31, 2018

তানজানিয়ার সংসদ ভবন থেকে এক কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত ইপাগালা ট্যাক্সি স্টপ, অর্থাৎ ‘ব্র্যাক স্ট্রিট’। এটাই বুঝিয়ে দেয় এই প্রতিষ্ঠানটি তানজানিয়া এবং এই দেশের মানুষের কাছে কতটা আপন!

ব্র্যাক আমাদের পরিবার, ব্র্যাক আমাদের গর্ব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ পরিবার এই ব্র্যাক এগিয়ে চলছে অদম্য গতিতে, পরিচালনা করছে মানুষের কল্যাণে আফ্রিকা এবং এশিয়ার বিভিন্ন দেশে নানান কর্মসূচি। আমরা সকলেই জানি বিগত পাঁচ বছরে আমরা চার-চার বার বিশ্বের ১ নম্বর এনজিও হবার গৌরব অর্জন করেছি।

তানজানিয়ার রাজধানী ডোডোমাতে স্থানীয় নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গের সিদ্ধান্তে তাদের নিজ শহরের একটি রাস্তার নাম রাখা হয় ‘ব্র্যাক স্ট্রিট’। তানজানিয়ার সংসদ ভবন থেকে এক কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত ইপাগালা ট্যাক্সি স্টপ, অর্থাৎ ‘ব্রাক স্ট্রিট’। সম্ভবত এটাই ইঙ্গিত করে যে এই প্রতিষ্ঠানটি রাজধানীর জন্য কতটুকু গুরুত্বপূর্ণ।

স্থানীয় সড়ক প্রতিমন্ত্রী রিচার্ড মাহেলেলা জানান যে স্থানীয় বসবাসকারী সবাই এই ট্যাক্সি স্টপকে ব্র্যাক স্ট্রিট নামেই সম্মোধন করে থাকে কেননা এই এলাকায় ব্র্যাকের জনপ্রিয়তা বহুল! মাহেলেলা আরো বলেন, ‘ট্যাক্সি স্টপের পাশের রাস্তাটি ও ব্র্যাক নামেই পরিচিত যেহেতু এটি প্রতিষ্ঠানের অফিসের পাশেই অবস্থিত’।

মাহেলেলা বলে চলেন, ‘২০০৮ সাল থেকে যখন ব্রাক এই শহরে আসে তখন থেকেই লোকে ইপাগালা এলাকাটিকে ব্র্যাক বলে সম্বোধন করেন।‘ তাঁর মতে ব্র্যাক এইখানে অতিপরিচিত এবং প্রিয় এক নাম বলে এই পছন্দটা খুবই স্বাভাবিক।

ডোডোমা শহর পরিকল্পনাকারী এলিজাবেথ লিউলি বলেন, ‘আশেপাশের ভবনগুলোর জনপ্রিয়তাও শহরের রাস্তার নামকরণে এবং জনগনের সুযোগ সুবিধায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। রাস্তার, সড়কের এবং পার্কের নামকরণেও এইসব জনপ্রিয় স্থাপত্যের অস্তিত্ব ব্যবহার করা যাবে’। জনগনের অংশগ্রহন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে, সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে তারা স্থানীয় নেতাদের সাথে পরামর্শ করে তবেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন।

সম্প্রতি তানজানিয়া সরকার থেকে বলা হয়, দেশের সকল রাজনৈতিক কাজকর্ম এখন থেকে ডোডোমাতে হবে কেননা এর জনসংখ্যা ২০২০ সালের আগে ২০ লাখে এসে দাঁড়িয়েছে। এই বদল হবে বাণিজ্যিক রাজধানী দারুস সালেম, যা কিনা গুরুত্বপূর্ণভাবে ভূমিকা রাখছে নানান কার্যক্রমে যেমন- বাণিজ্য , শিক্ষা, স্বাস্থ্য , কৃষি , শারীরিক অবকাঠামো এবং রিয়েল এস্টেট ইত্যাদি। সরকারি কার্যালয়, জমি, গৃহসংস্থান এবং মানব নিস্পত্তির সুষ্ঠ কার্য সম্পাদনের জন্য পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সব শহরের রাস্তার নামকরণের সিদ্ধান্ত নেন।

দুঃখজনকভাবে, কিছু  রাস্তার মধ্যে  সড়কের চিহ্ন নেই। সকল রাস্তার এবং সড়কগুলোর নামকরণের মাঝে অন্তর্নিহিত থাকে  ব্যবসা বাণিজ্যের সফলতা এবং জনগণের সেবা প্রদান। কারণ এতে করে সড়কগুলোকে সহজে সনাক্ত করা যাবে বলে মনে করেন লিউলি।

বাংলাদেশ থেকে হাজার হাজার মাইল দূরে অবস্থিত এই তানজানিয়া। একটি রাস্তার নামকরণের মাঝে একটি প্রতিষ্ঠানের প্রতি সেই এলাকার মানুষের ভালোবাসা ফুটে ওঠে। ব্র্যাকের জন্য মানুষের পাশে থেকে, মানুষের ভালোবাসা অর্জনটিই মূখ্য। সকলের ভালোবাসার শক্তিতে একদিন এই পৃথিবী হবে মুখরিত, পৃথিবী হবে সুন্দর- এই আমাদের প্রত্যাশা।